Wednesday, November 30, 2022
বাড়িবিজ্ঞানএন্ড্রয়েড ১৩, কি পেলাম?

এন্ড্রয়েড ১৩, কি পেলাম?

বর্তমান প্রজন্মের কাছে ‘এন্ড্রয়েড’ একটি অত্যন্ত সুপরিচিত ও বহুল ব্যাবহারিত একটি শব্দ। মূলত আধুনিক ইলেক্ট্রনিক্স ইনটেলিজেন্ট ডিভাইস তথা মোবাইল, কম্পিউটার, ট্যাব ইত্যাদির সাথে সংশ্লিষ্ট এই নাম। মূলত এন্ড্রয়েড একটি ওপেন সোর্স মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম যেটি পরিবর্তিত লিনাক্স কার্নেলের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। অনেক সময় এটিকে তাই লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম বলতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে আইটি প্রেমিকরা। বহুলভাবে জনপ্রিয় এই সিস্টেমটির প্রাথমিক নির্মাতা ‘অ্যান্ড্রয়েড ইনকর্পোরেট’ এর কাছে থেকে ২০০৫ সালে সিস্টেমটির মালিকানা কিনে নেয় বিশ্ববিখ্যাত প্রতিষ্ঠান গুগল। সেই থেকে সিস্টেমটির পরিচালনা করে আসছে গুগল।

সম্প্রতি ২০২২ সালের ১৫ আগস্ট, গুগল এন্ড্রয়েডের এ যাবতকালের সবচেয়ে আধুনিক সংস্করণ ভার্সন-১৩ রিলিজ করে। তারা নতুন এই ভার্সনের নাম দেয় ‘তিরামিসুযা ইতালিয়ান একটি মিষ্টি জাতীয় খাবারের নাম। ভার্সন ১২ এর কিছু সমস্যা দূরীকরণ ও নতুন কিছু ফিচার সংযুক্ত করা সহ ১৩ তম এই নতুন সংস্করনে তারা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে ঝামেলাহীন ইউজার এক্সপেরিয়েন্সের উপর। এছাড়া আরো কিছু ফিচার নিয়ে যদি আলোচনা করতে যাইঃ

১।ইউজার ফ্রেইন্ডলি এক্সপেরিয়েন্সঃ নতুন এ ভার্সনে সবচেয়ে বেশি নজর দেয়া হয়েছে ডিভাইসটি ইউজার ফ্রেইন্ডলি করার দিকে। প্রয়োজনীয় ও বহুল ব্যাবহারিত এপগুলো হাতের কাছে আনা, কালার পেলেট পরিবর্তন, কুইক এক্সসেস সহ মোটকথা এন্ড্রয়েডের ক্লাসি একটা লুক দেয়ার দিকে নজর দিয়েছে গুগল।

২।অটো থিমিং আইকনঃ প্রত্যেকটি থিমের সাথে এবং ওয়ালপেপারের সাথে মিল রেখে এপগুলোর অটো আইকন বা চিহ্ন পরিবর্তন হবে এই ভার্সনে।

৩।লকস্ক্রিনের যতো ফিচারঃ যখন ফোন স্লিপ মোডে থাকবে তখন হুট করেই লাইট জ্বলে উঠবেনা, ইউজার চাইলে লকস্ক্রিনে তার ম্যাসেজ বা নোটিফিকেশন দেখতে পারবে আবার হাইড রাখতে পারবে। এছাড়া লকস্ক্রিনে মৃদু আলোতে এক লাইন বা ২ লাইনের ডিজিটাল ঘড়ি দেখাবে। এছাড়া ফোন উল্টো করে রাখলে সাইলেন্ট মুডে চলে যাওয়ার ফিচারটিও আরো ডাইনামিক করা হয়েছে।

৪।কার্যকারিতা বৃদ্ধিঃ বেকড-ইন স্ক্রোলিং স্ক্রিনশট, এক-হাতে কন্ট্রোল মোড, স্মার্ট স্বয়ংক্রিয় ফোন রোটেটিং সেটিংস এবং একটি এপসার্চ বারের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় এপ সার্চ দিয়ে ব্যাবহার করার মতো সময় বাঁচানো কিছু ফিচার আনা হয়েছে ইউজারদের জন্য। এছাড়া কিউআর কোড স্ক্যান ঝামেলামুক্ত করার জন্য নোটিফিকেশন প্যানেল এর ব্যাবস্থা আনা হয়েছে। এছাড়া এন্ড্রয়েড ১২ তে যে নোটিফিকেশন প্যানেল ল্যাগিং সমস্যা ছিল সেটি দূর করা হয়েছে।

৫।একাধিক ভাষার সাপোর্টঃ এ যাবত সবচেয়ে নতুন যে ফিচার আনা হয়েছে সেটি হলো একই থিমে বিভিন্ন ভাষার সাপোর্ট। ইউজার চাইলে তার ইচ্ছামত বিভিন্ন এপের জন্য বিভিন্ন ভাষা সিলেক্ট করতে ও তার সিলেক্টেড ভাষায় সেটি ব্যাবহার করতে পারবে।

৬।প্রাইভেট ফটো পিকারঃ যখন কোন এপকে ইউজার কোন ফাইল বা গ্যালারি রিড করার অনুমতি দিবে তখন সেই এপ চাইলেই সেই ফাইলের সবকিছু এক্সসেস করতে পারবেনা। শুধুমাত্র ইউজার যেই ছবি বা এলিমেন্টগুলো সিলেক্ট করে দিবে, সেগুলোই এক্সসেস করতে পারবে। এই ফিচারটি নতুন ভার্সনের ফোনের ইউজারের সিকিউরিটি আর প্রাইভেসি দুটোই অনেক শক্তিশালী করেছে।

৭। দ্রুত ব্লুতুথ ডিভাইস পেয়ারঃ অ্যান্ড্রয়েড 13-এ, ফাস্ট পেয়ার বা দ্রুত ব্লুতুথ ডিভাইসের সাথে কানেক্ট করার ফিচারকে সরাসরি অপারেটিং সিস্টেমের মধ্যে তৈরি করা হয়েছে, যা ব্যবহার করা আরও সহজ করে তুলবে।

৮। চমকপ্রদ মিডিয়া প্ল্যেব্যাকঃ অ্যান্ড্রয়েড 13-এ একটি আপডেটেড মিডিয়া প্লেয়ার রয়েছে যা আপনি যে মিউজিক বা পডকাস্ট শুনছেন তার উপর ভিত্তি করে এর ইন্টারফেস এবং অনুভূতি তৈরি করে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যখন কোন গান শুনছেন, তখন মিডিয়া প্লেয়ার অ্যালবাম আর্টওয়ার্ককে স্পটলাইট করে এবং একটি প্লেব্যাক বার থাকে যা আপনি একটি গান শোনার সাথে সাথে নাচতে থাকে। এটি এমনকি Chrome এর মাধ্যমে চালানো মিডিয়ার জন্যও কাজ করে।

এছাড়াও ব্যাকগ্রাউন্ডে আরও কিছু চমকপ্রদ পরিবর্তন এনেছে প্রতিষ্ঠানটি যা একজন ইউজার ব্যাবহারের সময় নিজের অজান্তেই এর ফিচারগুলো এক্সপেরিয়েন্স করবে।

পূর্ববর্তী নিবন্ধ
পরবর্তী নিবন্ধ
সম্পর্কিত প্রবন্ধঃ

মন্তব্য বাদ দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন

সবচেয়ে জনপ্রিয়